আশাশুনিতে পানিবন্দী কয়েকটি পরিবার : মৎস্য ঘের ও ফসলী জমি প্লাবিত

কর্তৃক Ahadur Rahman Jony
০ কমেন্ট 8 ভিউস

আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনি উপজেলার বুধহাটায় ভারী বর্ষণে পানি বন্দী হয়ে আছে কয়েকটি পারিবার। এছাড়া অত্র এলাকার মৎস্য ঘের ও কয়েক শত একর ফসলী জমি পানিতে প্লাবিত হয়ে আছে। সরেজমিন গিয়ে জানাগেছে, গ্রামীণ ফোন টাওয়ার সংলগ্ন বুধহাটা উত্তর পাড়ায় বৃষ্টির পানি নিস্কাশন না হওয়ায় ১০টি পরিবার পানিবন্দী হয়ে মানববতার জীবন জাপন করছেন। শিশু থেকে বৃদ্ধ পর্যন্ত বাড়ী থেকে বাইরে কেউ বের হতে পারছেন না। এমনকি টয়লেট ও টিউবওয়েল পানিতে ডুবে একাকার হয়ে আছে। পানিবন্দী হওয়া পরিবার গুলো মধ্যে মোঃ সেলিম হোসেন, রজব আলী, আবুল দোফারের ছেলে মোবারেক হোসেন, মনিরউদ্দীন সরদারের ছেলে আব্দুল করিম ও আব্দুর রউপ, আব্দুল গফুরের ছেলে আতিকুল ইসলাম, মিয়াজার মালীর ছেলে আব্দুল হাকিম ও আব্দুল হামিদ, এরশাদ সরদারের ছেলে মিঠু সরদার এবং আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী মনি খাতুনের বসৎবাড়ী পানিতে প্লাবিত হয়ে আছে। স্থানীয়রা জানান, এসকল এলাকার পানি বুধহাটা বাজার সংলগ্ন স্লুইচ গেট দিয়ে নিস্কাশন হয়ে থাকে। কিন্তু বর্তমানে নতুন করে স্লুইচ গেট নির্মান করার কারণে গেটের মুখ বন্দ থাকায় পানি নিস্কাশন ব্যহত হচ্ছে। আর একারণে বুধহাটা উত্তর পাড়া ও পশ্চিম পাড়ার সাধারণ মানুষ পানি বন্দী হয়ে মানবতার জীবন জাপন করছেন। জমে থাকা বৃষ্টির এ পানিতে বাথরুম ও বিভিন্ন খানা খন্দকের ময়লা পানি মিশে যাওয়ায় পানি বাহিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে পানিবন্দী পরিবারের সদস্যরা। এব্য্যাপারে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা বলেন বিষয়টি আমার জানাছিলো না। তবে অতিদ্রুত এসকল এলাকা থেকে পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানান তিনি।

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!