কুলিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে কৃষক নিহত

কর্তৃক porosh
০ কমেন্ট 34 ভিউস

স্টাফ রিপোর্টার, দেবহাটা:

দেবহাটার কুলিয়ায় ইরি ধানের ক্ষেতের বাঁধে ইদুর মারা বিদ্যুতের তারে স্পৃষ্ট হয়ে কৃষ্টপদ নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে দেবহাটা উপজেলার কুলিয়া ইউনিয়নের শশাডাঙ্গা গ্রামে। বুধবার (৮ মার্চ) ভোর আনুমানিক ৬টার সময় এ দূর্ঘটনাটি ঘটলে তাৎক্ষনিক ভাবে তাকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শশাডাঙ্গা গ্রামের মৃত্য জসিম সরদারের ছেলে করিম সরদারের সেচ মিটার থেকে করিম সরদারের ছেলে ওসমান ১০বিঘার একটি মৎস ঘের ও করিম সরদারের জামাতা আব্দুল মান্নান মোল্ল্যা ৬বিঘা জমির আরেকটি মৎস ঘেরের সাথে ইরিধানের চাষ করে আসছে। আব্দুল মান্নানের মৎস ঘেরে অর্ধেক ভাগিতে ৬বিঘা জমিতে ভেন্নাপাতা গ্রামের মাওলা গাজীর ছেলে সেলিম, শশাডাঙ্গা গ্রামের নেপাল সরকারের ছেলে কৃষ্টপদ সরকার ও ঘের মালিক আব্দুল মান্নান এই ৩জন মিলে ইরি ধানের চাষ করছে। উক্ত ৬বিঘা জমিতে ইরিধানের চারা রোপনের পরে ইদুরের উৎপাতের জন্য জমির চারপাশে কারেন্টের তার দিয়ে ইদুর মারার ফাঁদ তৈরি করা হয়। এই তারে সারারাত কারেন্ট থাকে সকালে কারেন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়। এব্যাপারে সাতক্ষীরা থানার এস আই জুয়েল সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিহত কৃষ্টপদের লাশ তদন্ত করতে আসলে কৃষ্টপদের বড় ছেলে শংকর জানান, বাবা ওই রাত্রে ইদুর মারার ফাঁদের সুইচ অন করে সকালে অফ করার কথা খেয়াল না থাকায় তিনি ধান ক্ষেতে গেলে তার পায়ে বিদ্যুতের তারের শক লাগায় তিনি মৃত্যু বরণ করেন।

এব্যাপারে দেবহাটা থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ ওবায়দুল্লাহ কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কৃষ্টপদ সরকার হাপাতালে মারা গেলে এ বিষয়ে সদর থানা থেকে আমার কাছে জানতে চাইলে আমি বিষয়টি তদন্ত করে ইদুর মারার তারে স্পৃষ্ট হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে এ বিষয়ে একটি রিপোর্ট পাঠিয়েছি।



রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!