ঝুলে আছে মশিয়ার রহমানের বহিষ্কারাদেশ

সভা না হওয়ায় সিদ্ধান্ত হয়নি- নজরুল ইসলাম;- জবাব দিয়েছি, সিদ্ধান্ত জেলা আ’লীগের- মশিয়ার রহমান;

কর্তৃক Ahadur Rahman Jony
০ কমেন্ট 260 ভিউস

হাবিবুর রহমান: উপজেলা ব্যাপী ত্রাসের রাজত্ব কায়েমের অভিযোগ আছে তালা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সরদার মশিয়ার রহমানের বিরুদ্ধে। এ ছাড়াও জমি জবর দখল করা সহ নানা অপকর্ম করে জড়িত হয়ে পড়েছেন বলে অভিযোগ আছে।
সম্প্রতি বিরোধী জমি দখল নিয়ে সংবাদের শিরোনাম হন তালা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক সরদার মশিয়ার রহমান। অপর দিকে ২০২০ সালের ১৭ আগস্ট তালা উপজেলার নলবুনিয়া বিলের সরকারি খালে মাছ ধরার সময় ঘেরে মাছ চুরির অভিযোগে নির্যাতনের শিকার নিজ এ ছেলে সেলিম নিকারীকে বাঁচাতে এসে নিহত হন লুৎফর নিকারী। নিহতের ছেলে সেলিম নিকারীর অভিযোগ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে মশিয়ার রহমান তার বাবার বুকে লাখি মেরে খালে ফেলে দেন। এরপর গ্রামবাসীরা লুৎফর নিকারীকে উদ্ধার করে তালা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে। এ ঘটনায় উত্তাল হয়ে উঠে গোটা তালা উপজেলা। ঘটনার পর মঙ্গলবার সকালে লাশ নিয়ে তালা সদরে বিক্ষোভ মিছিল করে মশিয়ার রহমানের ফাঁসির দাবিতে থানা ঘেরাও করে গ্রামবাসী। পুলিশ তোপের মুখে মশিয়ার রহমানকে গ্রেফতার করে ও ঘটনায় জড়িত তিনজনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা রেকর্ড করে। মামলা বাদী হন নিহতের ছেলে সেলিম নিকারী। মশিয়ার রহমানের শাস্তির দাবিতে গত ১৯ আগষ্ট সাতক্ষীরা সদরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় ঘেরাও করে হত্যাকারীদের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন ও প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দেন গ্রামবাসীরা।
এ ঘটনায় ওই রাতেই সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের তৎকালীন সভাপতি মুনসুর আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ নজরুল ইসলাম যৌথ স্বাক্ষর যুক্ত একটি পত্রে তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক পদ থেকে বহিষ্কার পূর্বক কৈফিত তলব করা হয়। পাঠকদের জ্ঞাতার্থে সাময়িক বহিষ্কারাদেশের হুবুহু তুলে ধরা হলো।
“বিগত ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, তালা উপজেলা আওয়ামী লীগ এর ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল অধিবেশনের দ্বিতীয় পর্বে উপজেলা আওয়ামী লীগের আংমিক কমিটি ঘোষিত হয়। ঘোষিত কমিটিতে আপনাকে সাংগঠনিক সম্পাদক হিসাবে মনোনিত করা হয়।
আপনার বিরুদ্ধে এই মর্মে অভিযোগ পাওয়া গিয়াছে যে, আপনি সংগঠনের পদ পদবী ব্যবহার করে সমগ্র উপজেলাব্যাপী নিজস্ব সন্ত্রাসী বাহিনী গঠন সহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যক্রমে জড়িত হয়ে পড়েছেন। সম্প্রতি তালা উপজেলার জেয়ালা নলতা নামক গ্রামের নলবুনিয়া মৎস ঘেরে একজন কৃষি শ্রমিক হত্যায় আপনি জড়িত বলে প্রাথমিকভাবে জানা যায়। আপনার এহেন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে সংগঠনের ভাবমূর্তি প্রচন্ডভাবে ক্ষুন্ন হওয়ায় সংগঠনের শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রের ৪৭(ক) ধারা সহ বিভিন্ন উপধারায় বর্ণিত মোতাবেক আপনাকে সংগঠনের ‘তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক’ পদ হইতে সাময়িক বহিষ্কার করা হলো।”
“যেহেতু আপনার বিরুদ্ধে অভিযোগ সমূহ গুরুতর, বিধায় চূড়ান্তভাবে আপনাকে কেন সংগঠন থেকে স্থায়ী ভাবে বহিষ্কার করা হবেনা তাহা অত্র পত্র প্রাপ্তির ২১ দিনের মধ্যে নিম্নস্বাক্ষরকারী বরাবর লিখিত জবাব দাখি করার জন্য বলা হলো।’’
ওই বহিষ্কারাদেশের বিষয়ে সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের প্রশাসক আলহাজ্ব মোঃ নজরুল ইসলাম সাতনদীকে জানান, ‘সরদার মশিয়ার রহমান জবাব দাখিল করেছিলো। কিন্তু এরপর আর জেলা আওয়ামী লীগের সভা না হওয়ায় কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি।’
বহিষ্কারাদেশের বিষয়ে তালা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও তালা উপজেলা আওায়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সরদার মশিয়ার রহমান সাতনদীকে জানান, ‘আমাকে জবাব দিতে বলা হয়েছিলো, আমি জবাব দিয়েছি। কি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে এটা জেলা আওয়ামী লীগের বিষয়। অন্যান্য অভিযোগের বিষয়ে তিনি জানান, সম্পূর্ণ রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে একটি পক্ষ তার বিরুদ্ধে এসব অপপ্রচার চালাচ্ছে।’

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!