টাকা আত্মসাতের সত্যতা মিলেছে-খুলনা জেলা পরিষদে দুদকের অভিযান

0 ৪৪৬

অনলাইন ডেস্ক:  সোমবার দুপুরে খুলনা জেলা পরিষদে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

জেলা পরিষদের বিভিন্ন কাজের দরপত্র বিক্রির ২৩ লাখ টাকা, খেয়াঘাট ইজারার ২০ লাখ টাকা ও টিএ বিল বাবদ ১ লাখ ৮৩ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে অভিযানে যায় (দুদক)। এ সময় সাবেক প্রধান সহকারি মো. মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে প্রায় ৪৫ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া যায়।

এদিকে অভিযানের সময় জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান জানান, দরপত্র বিক্রির ২৩ লাখ টাকার মধ্যে মিজানুর রহমান এরই মধ্যে ১৩ লাখ টাকা ফেরৎ দিয়েছেন। এ সময় দুদকের উপসহকারি পরিচালক নীলকমল পাল ও খন্দকার কামরুজ্জামান, সহকারি পরিদর্শক শ্যামল চন্দ্র সেন উপস্থিত ছিলেন।

দুদকের সহকারী পরিচালক তরুণ কান্তি ঘোষ জানান, অভিযুক্ত মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে বিভাগীয় মামলা চলমান রয়েছে। তিনি ২০১৭-১৮ অর্থবছরের টিএ বিল, দরপত্র বিক্রি ও মহেশ্বরপাশা খেয়াঘাট ইজারা দিয়ে পাওয়া টাকা সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে আত্মসাৎ করেছেন।