তালায় ছেলেকে ১৫ দিনের কারাদন্ড, ‘চিন্তায়’ বাড়িতে মারা গেলেন মা

কর্তৃক Ahadur Rahman Jony
০ কমেন্ট 146 ভিউস

তালা অফিস থেকে নজরুল ইসলাম: সাতক্ষীরায় ছেলেকে দেয়া ভ্রাম্যমাণ আদালতের কারাদন্ডের খবর শুনে বুকে ব্যথা শুরু হয় মা ফেরদৌসী বেগমের। এরপর আকস্মিক মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি। হৃদয় বিদারক এই ঘটনাটি ঘটেছে সাতক্ষীরার তালা সদরের কাজিপাড়ায়। শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৫টায় তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে। ফেরদৌসী বেগম (৫০) তালা সদরের কাজিপাড়ায় কাজী নজরুল বারীর স্ত্রী।
মৃতের ছেলে কাজী জীবন জানান, বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে মাদক সেবনের অভিযোগ এনে মেজো ভাই কাজী শিপনকে আটক করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর। এরপর তাকে হাজির করা হয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ভ্রাম্যমাণ আদালতে। সেখানে ১৫ দিনের কারাদন্ডের রায় দেন কর্মকর্তা। এরপর থেকে বাড়িতে মা চিন্তায় অসুস্থবোধ করতে থাকে। বিকেলে ভাইকে কারাগারে পাঠানো হয়। রাত সাড়ে ১০টার দিকে মা বুকে ব্যথা অনুভব করে কথা বলতে বলতে আকস্মিক মারা গেছেন।
এদিকে, জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের বিশেষ অনুমতিতে প্যারোলে মুক্তি পেয়ে মায়ের জানাযায় অংশ নিতে পারেন দন্ড প্রাপ্ত ছেলে কাজী শিপন।
তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার রায় বলেন, ছেলে কাজী শিপনের কারণে তার মা মারা গেছেন ঘটনাটি জেনেছি। বিষয়টি খুব হৃদয়বিদারক। তার ছেলে গাজা সেবন করে এটি সে স্বীকার করায় তাকে ১৫ দিনের কারাদন্ড দেয়া হয়েছিল। সাজা মওকুফের জন্য পরিবারটি জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে আপিল করতে পারবেন।

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!