ব্রহ্মরাজপুরে পুলিশের সহায়তায় জলাবদ্ধতা নিরসন: পুলিশকে ধন্যবাদ জানালো গ্রামবাসী

কর্তৃক Ahadur Rahman Jony
০ কমেন্ট 47 ভিউস

নিজস্ব প্রতিবেদক: অবশেষে সদর উপজেলার ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়নের উমরাপাড়া গ্রামের আলোচিত রাস্তার জলাবদ্ধতা মঙ্গলবার (১৩ আগষ্ট) বিকেলে পুলিশের সহায়তায় নিরসন হয়েছে। এ ঘটনায় গ্রামের শত শত নারী-পুরুষ জলাবদ্ধতার চরম ভোগান্তি থেকে রক্ষা পাওয়ায় স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলার পাশাপাশি পুলিশকে ধন্যবাদ জানিয়েছে।
জানা যায়, উমরাপাড়া গ্রামের মৃত তায়জুদ্দীনের পুত্র জাকির হোসেন আফিল সম্প্রতি রাস্তার পাশের পুকুর পাড় ভেঙ্গে যাওয়ার অজুহাত দেখিয়ে চেয়ারম্যান-মেম্বারের অনুমতি নিয়ে নিজের অর্থে বাড়ির সামনে রাস্তা উঁচু করে নেয়। এতে করে বৃষ্টি হলেই শাহাদাত খাঁ, আনোয়ারা খাতুন, আবু বাক্কার, হামিদ ও কবিরের বাড়ির যাওয়ার মুখে রাস্তার উপর হাঁটু পানি বাঁধতে থাকে। এই পানি যাতে শাহাদাত খাঁ, আবু বাক্কার, হামিদ ও কবিরের বাড়িতে উপর দিয়ে প্রবাহিত হতে না পারে সেজন্য তারাও রাস্তার পাশে উঁচু করে মাটি তুলে বাঁধ দেয়। এতে করে রাস্তার উপর পানি জমে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। এর ফলে একটি গ্রামের পুরো লোকজন জলাবদ্ধতার কবলে ভোগান্তিতে পড়ে। এমনকি রাস্তায় চলাচলে চরম দূর্ভোগের শিকার হয়। গত দুই মাস ধরে ব্রহ্মরাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান এস,এম শহিদুল ইসলাম ও ৬নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ রেজাউল করিম মিঠু বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার সরেজমিনে গিয়েও সমাধান করতে ব্যর্থ হয়। এ ঘটনায় গত ৭ আগষ্ট সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আসাদুজ্জামান বাবু ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবাশীষ চৌধূরী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অতি দ্রুত রাস্তাটি উঁচু করে সংস্কারের মাধ্যমে জলাবদ্ধতা নিরসনের ঘোষনা দেন।
এদিকে, মঙ্গলবার (১৩ আগষ্ট) দুপুর হতে বিকাল পর্যন্ত প্রবল বর্ষনে রাস্তাটির অনেক অংশ জুড়ে ব্যাপক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এতে করে উমরাপাড়া গ্রামের মানুষজন ও ঈদ উপলক্ষে আসা আত্মীয়-স্বজনরা পানি বন্দী হয়ে বিপাকে পড়ে। যাতায়াতের রাস্তায় কৃত্রিমভাবে জলাবদ্ধতা সৃষ্টির অভিযোগ এনে গ্রামের কয়েকজন বিষয়টি সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মির্জা সালাহ উদ্দীন ও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমানকে জানান। এ ঘটনায় তারা তাৎক্ষনিক জলাবদ্ধতা নিরসন ও পানি অপসারন করে চলাচলের পথ স্বাভাবিক করতে ব্রহ্মরাজপুর পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ এস,আই হাসানুজ্জামানকে নির্দেশ দেয়। পরবর্তীতে এস,আই হাসানুজ্জামান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে উপস্থিত থেকে প্রায় ৩ ঘন্টা গ্রামের লোকজনের সহযোগিতায় রাস্তার পাশ দিয়ে ড্রেন করে সব পানি অপসারনের মাধ্যমে জলাবদ্ধতা সমস্যা সমাধান করে।
উমরাপাড়া গ্রামের সাবের আলী, মিঠুন মোড়ল, বারেক, শরিফুল, ফরিদা, লুৎফর, আকতার ঢালী, সুজন, রজব আলী, জাফর আলী, সিরাজুল ইসলাম, ছলেমান মোড়ল জানান, পানি বন্দী গ্রামের মানুষ জলাবদ্ধতা নিরসনে আনন্দ উল্লাস প্রকাশ করেছে। একই সাথে পুলিশকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানাতেও ভুল করেনি গ্রামবাসী। তাদের পক্ষ থেকেও জানানো হয়েছে পুলিশকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। পুলিশের সহযোগিতা না পেলে জলাবদ্ধতায় দিনে দিনে মানুষের জীবন দূর্বিসহ হয়ে উঠত।

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!