ব্রহ্মরাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ও উপজেলা প্রকৌশলী জাহানারা খাতুনের নামে আদালতে মামলা

কর্তৃক Ahadur Rahman Jony
০ কমেন্ট 13 ভিউস

নিজস্ব প্রতিবেদক: সাতক্ষীরার ব্রহ্মরাজপুরে রেকর্ডীয় সম্পত্তির প্রাচীর ভেঙে কালভার্ট নির্মাণ চেষ্টার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ১১ জুলাই ১৯ তারিখে ব্রহ্মরাজপুর গ্রামের মৃত আহম্মদ আলী সরদারের ছেলে হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে ব্রহ্মরাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম ও সদর উপজেলা প্রকৌশলী জাহানারা খাতুনের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে উক্ত স্থানে ১৪৫ ধারা জারি পূর্বক শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য সাতক্ষীরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জকে নির্দেশ দিয়েছেন। উল্লেখ্য: ভুক্তভোগী হাবিবুর ব্রহ্মরাজপুর মৌজায় এস এ খতিয়ান নং ১৪৭৩ বি এস খতিয়ান নং- ১৩৩০, সাবেক দাস ৪৭৪০, হাল দাগ নং- ৬৯৭৬, জমির পরিমাণ ৪৫ শতক সম্পত্তি মালিক। ব্রহ্মরাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে সম্পূর্ণ গায়ের জোরে হাবিবুরের উক্ত সম্পত্তির প্রাচীর ভেঙে কালভার্ট নির্মানের নির্দেশ দেয়। অথচ তার পাশেই সরকারি খাস জমি রয়েছে। ওই খাস জমির উপর দিয়ে কালভার্টটি নির্মাণ করলে একদিকে সম্পত্তি নষ্ট হতো না অন্যদিকে অত্র এলাকার পানি নিস্কাশিত হতো। কিন্তু যেখান দিয়ে উক্ত কালভার্ট নির্মাণের চেষ্টা করা হচ্ছে সেখানে নির্মাণ করলে অত্র এলাকার পানি তো নিস্কাশিত হবে না শুধু পয়সা ব্যয় করা হবে মাত্র এবং হাবিবুরকে ক্ষতিগ্রস্থ করা হবে। চেয়ারম্যানের কথা অনুযায়ী প্রকৌশলী জাহানারা খাতুন নিজে (ফিল্ডে) সরেজমিনে না গিয়ে কাজটি পাশ করেছেন। যা নিয়ম বহির্র্ভূত। এধরনের প্রকল্প পাশ করার পূর্বে অবশ্যই প্রকৌশলীকে সরেজমিনে পরিদর্শন করতে হয়। কিন্তু বর্তমান প্রকৌশলী জাহানারা চেয়ারম্যানের সাথে যোগসাজস করে অফিসে বসেই প্রকল্পটি পাশ করেন। কিন্তু এবিষয়ে তাদের অনুরোধ করেও কোন লাভ হয়নি। ফলে উপান্তর হয়ে ভুক্তভোগী হাবিবুর রহমান তদন্তপূর্বক সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে বিজ্ঞ আদালতে মামলা দায়ের করেন।

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!