বড়দলে স্কুলে ঢুকে শিক্ষকের সাথে অশালীন আচরন ও শিক্ষার্থীদের মারপিট

কর্তৃক Ahadur Rahman Jony
০ কমেন্ট 15 ভিউস

সচ্চিদানন্দদেসদয়,আশাশুনি: আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউনিয়নে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঢুকে স্কুল শিক্ষিকার সাথে অশালীন আচরণ ও শিক্ষার্থীদেরকে বেদম মারপিট করেছে এক অভিভাবক। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।
গোয়ালডাঙ্গা গ্রামের ই¯্রাফিল সরদারের স্ত্রী জোছনা খাতুন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগে জানান, তার পুত্র আলবাদ হোসেন বড়দল ইউনিয়নের ৪৮ নং চাম্পাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণির ছাত্র। ৩১ আগষ্ট সকাল ৯ টার দিকে গোয়ালডাঙ্গা গ্রামের মৃত তাবারক সরদারের পুত্র মিজানুর রহমান তার হঠাৎ করে স্কুলে ঢুকে আলবাদকে বেদম মারপিট ও কান-চুল-গলা ধরে ও পেটের চামড়া ধরে টানাটানি করেন। ছেলেটি ব্যাথা পেয়ে ও আতঙ্কে কান্নাকাটি ও চিৎকার শুরু করলে অন্য বাচ্চাদের মা লতিকা রানী, আরতী রানী, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা আসেন। তখন তিনি আস্ফালন করতে করতে বিনানুমতিতে শ্রেণি কক্ষে ঢুকে শ্রেণি শিক্ষক রুবিয়া সুলতানার সঙ্গে অশালীন আচরণ ও অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে হুমকী ধামকী দিতে দিতে বাইরে যাওয়ার সময় অন্য এক ছাত্রীকেও মারধর করেন। খবর পেয়ে জোছনা খাতুন স্কুলে নালিশ করতে গেলে উক্ত মিজানুর তাদের বাড়িতে গিয়ে তাকে না পেয়ে তার বৃদ্ধ শ^শুর ওসমান সরদারকে (৬০) মারধর করে গলাধরে টেনে রাস্তায় ফেলে দিয়ে রক্তাক্ত জখম করেন। ফলে ভীত সন্ত্রস্ত ছোট ছোট শিশুরা স্কুলে যেতে ভয় পাচ্ছে। মারপিটের শিকার শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে সুবিচার ও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবীতে ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!