মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দফতরি আটক

কর্তৃক porosh
০ কমেন্ট 39 ভিউস

জাতীয় ডেস্ক:

মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার মাদ্রাসায় এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। মানিকগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুর রউফ সরকার জানান, এ ঘটনায় সোমবার (১৩ মার্চ) দুপুরে ওই মাদ্রাসার দফতরিকে আটক করেছে পুলিশ।

আটক দফতরির নাম আবদুল জলিল (৬০)। তার বাড়ি শরীয়তপুরে।

পুলিশ এবং ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত চার দিন আগে মাদ্রাসায় চতুর্থ শ্রেণির ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে দফতরি জলিল। বিষয়টি কাউকে না জানাতে সে ছাত্রীকে ভয়ভীতি দেখায়। সোমবার দুপুরে ভুক্তভোগী ধর্ষণের বিষয়টি অভিভাবকদের জানায়। এর পর মাদ্রাসায় গিয়ে এক ছাত্রীর অভিভাবকের কাছ থেকে বিস্তারিত জানার পর পুলিশকে খবর দেন ভুক্তভোগীর বাবা। পরে পুলিশ মাদ্রাসায় গিয়ে দফতরি জলিলকে আটক করে।

ভুক্তভোগী শিশুর বাবা জানান, গত তিন মাসে রাতের বেলায় একা পেয়ে মাদ্রাসার আরও দুই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করে দফতরি জলিল। ধর্ষণের শিকার হওয়া ওই দুই শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা থানায় অভিযোগ দেবেন।

মানিকগঞ্জ সদর থানার ওসি বলেন, ‘এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মাদ্রাসার দফতরিকে আটক করা হয়েছে। এ ছাড়াও আরও দুই ছাত্রী ও তাদের অভিভাবকরা থানায় এসেছেন।’

আটক জলিলের বিরুদ্ধে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!