করোনার ক্রান্তিকাল

0 ৩৬৮

করোনার ক্রান্তিকাল

আলহুসাইন অমি
চারিদিকে মৃত্যুর মিছিল;
বন্দী সবাই আজ ঘরে ঘরে,
বিশুদ্ধ হে বায়ু তুমি কোথায় লুকিয়ে হায়;
ডাকি যে তোমায় আজ বাহুডোরে।
ভিড়ভাড় দেখে ভাই আত্মাটা কেঁপে যায়;
এখানেই আছে বুঝি করোনা,
মরতে যে লাগে ভয় আমি তো জানিরে ভাই;
মানুষটা মোটে আমি ভালো না।
চাকরিটা চলে গেল বাড়িতে বসে বসে;
ব্যবসাটাও আজ প্রায় বন্ধ,
টিভি ফেসবুক আর সোশ্যাল মিডিয়াজুড়ে;
কত-শত মরা লাশের গন্ধ।
স্কুল কলেজগুলো বন্ধ ঘোষনা;
দিনে দিনে বাড়ছে লকডাউন,
মিছিল মিটিং সবই বন্ধ এখন;
নেই কোনো নেতাদের শোডাউন।
পড়াশুনা ছেড়ে দিয়ে কিশোর-কিশোরীরা;
ইন্টারনেটে খায় গড়াগড়ি,
বুকেতে ভয় চেপে দু’হাত তুলেছে যারা;
অধিকাংশই সব বুড়োবুড়ি।
কিছু কিছু এলাকা রেডজোনে আছে ভাই;
যানবাহন চলাচল বন্ধ,
এখনো যে কিছু পাপী চলেছে বেপরোয়া,
ওদের কি চোখ দুটো অন্ধ?
অর্থনীতি আজ পড়েছে থুবড়ে মুখ;
জিডিপি যাবে কি নেমে শূণ্যে?
অর্থহীন মানুষগুলো কি তবে ছিড়বে নিজের চুল;
বনে যাবে হিংস্র হন্যে?
জোচ্চুরি করে যারা ভরিভরি টাকাকড়ি;
রেখেছিল ব্যাংকেতে জমিয়ে,
তারা আজ ভালো আছে জমিয়ে খাচ্ছে বেশ;
লকডাউন কাটছে ঘুমিয়ে।
গরীবও আছে বেশ;
ত্রাণ তো পাচ্ছেই হাত পাতলেই আসে টাকা,
কোনোমতে খেয়েপরে বাঁচলেই খুশি তারা;
গড়াবেতো জীবনের চাকা।
কইতেও পারেনা সইতেও পারেনা;
মধ্যবিত্ত যত আছে সব,
পেটেতে পাথর বেঁধে বুকেতে কান্না চেপে;
বসে থাকে নিরুপায় নির্বাক।
ঠিকমত জ্বলছেনা উনুনের আগুন আর;
তিনবেলা জুটছেনা অন্ন,
বুকেতে হাত রেখে তবুও বলছি ভাই;
বেঁচে আছি এই তো ধন্য।
সৃষ্টিকর্তার কাছে  প্রাণ চাই ভিক্ষা;
ধরণী হোক এ গজব মুক্ত,
মিলেমিশে থাকি যেন রাজা-প্রজা সকলেই;
মনেতে এ বাসনা সুপ্ত।

 

 

বিশেষ প্রতিবেদক

দৈনিক সাতনদী