আগরদাঁড়ি সম্পত্তির বিরোধ নিরসন করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন এমপি রবি

কর্তৃক Ahadur Rahman Jony
০ কমেন্ট 16 ভিউস

নিজস্ব প্রতিবেদক: সাতক্ষীরায় হিন্দু পরিবারের দুই সহোদরের পারিবারিক পৈত্রিক সম্পত্তি নিয়ে দীর্ঘদিনের বিরোধ যা গ্রাম্য শালিস ও ইউনিয়নের গ্রাম আদালতে মিমাংসা না হওয়ায় থানা ও আদালতে গড়ায়। অতিষ্ঠ এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিনে গিয়ে উভয়পক্ষ ও ইউপি চেয়ারম্যান, এলাকাবাসী এবং গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে দীর্ঘদিনের সেই বিরোধের সমাধান করে সম্প্রীতির মাধ্যমে শান্তি ফিরিয়ে এনে নজিরবিহীন দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন সাতক্ষীরা ০২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। তিনি শুক্রবার (০২ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টায় সদরের আগরদাঁড়ি ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের বাবুলিয়া সাহাপাড়া কালিতলায় যান। উভয় পক্ষ এবং এলাকাবাসীর বক্তব্য শোনেন এবং সমাধান করে সকলকে তাক লাগিয়ে দেন। এসময় এমপি রবি বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকার মানুষের মাঝে সম্প্রীতি ও শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে চাই। সে লক্ষ্যে আমি সরেজমিনে এসে দীর্ঘদিনের বিরোধের সমাধান করেছি।’ এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের আহবায়ক মো. আব্দুল মান্নান, জেলা বঙ্গবন্ধু পরিষদেও সভাপতি মকসুমুল হাকিম, আগরদাঁড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মো. মজনুর রহমান মালি, আগরদাঁড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. হাবিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক তাপষ কুমার আচার্য্য, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক, সদর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক মইনুল ইসলাম, পলাশ মাস্টার প্রমুখ।
এ ব্যাপারে আগরদাঁড়ি ইউনিয়নের ০৯ ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি শামছুর রহমান বলেন, ২০১৭ সালের আগে থেকে স্বর্গীয় সুবল সাহার বড় ছেলে স্বপন কুমার সাহা ও ছোট ভাই তপন কুমার সাহার সাথে পারিবারিক পৈত্রিক সম্পত্তি নিয়ে দীর্ঘদিনের বিরোধ চলছিল। কোন বিচার ও কারও সিদ্ধান্ত না মানায় যা গ্রাম্য শালিস ও ইউনিয়নে গ্রাম আদালতে গড়ায়। সেখানে মিমাংসা না হওয়ায় মামলা হয় সদর থানায় ও আদালতে। গ্রাম্য শালিসের বিচার না মেনে বড় ভাই স্বপন কুমার সাহা ও তার বউদি পূর্ণিমা রাণী সাহা ছোট ভাই তপন কুমার সাহার নামে ৪টি মিথ্যা মামলা দায়ের করে এবং সেই মামলায় অহেতুকভাবে ইউপি সদস্য শামছুর রহমানসহ আরো ৫ জনের নামে সাতক্ষীরা আদালতে সিআরপি ৭৮/১৮. জিআর ৫০৯/১৭ ও সর্বশেষ ৩৫৮/১৯ সহ মোট ৪টি মামলা করে সংখ্যালঘু পরিচয়ে মামলা দিয়ে নিরীহ মানুষদের হয়রানী করে আসছে ঐ স্বপন কুমার সাহা ও স্ত্রী পূর্ণিমা রাণী সাহা। তাদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ নিরীহ এলাকাবাসী। দীর্ঘদিন পর বিরোধের সমাধান হওয়ায় এলাকায় শান্তির সুবাতাস বইছে। আইন আদালত যে বিরোধ মেটাতে পারিনি সেই সমাস্যার সমাধান করে দৃষ্ট্রান্ত স্থাপন করলেন এমপি রবি। এসময় দলীয় স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তি, মুক্তিযোদ্ধা ও এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!