কলারোয়ায় স্বস্তির কমিউনিটি ক্লিনিকের রাস্তা নিয়ে অস্বস্তি

0 ৭২

কলারোয়া ব্যুরো।। স্বাস্থ্য সেবা নাগরিকের দোরগোড়ায় পৌছে দিতে সরকার দেশের প্রতিটি ইউনিয়নে কমিউনিটি ক্লিনিক প্রতিষ্ঠা করেছেন। যার ছোয়া থেকে বাদ পড়েনি কলারোয়া উপজেলার ৩নং কয়লা ইউনিয়নও। সেই স্বস্তির ক্লিনিক এখন যেনো অস্বস্তির কারণ হয়ে উঠেছে।

কারণ কলারোয়া উপজেলার কয়লার সেই কমিউনিটি ক্লিনিকে যাওয়া আসার জন্য রাস্তার কোন ব্যবস্থা নেই।

 এতে করে বয়স্ক নারী-পুরুষ ও শিশুদের স্থানীয় জাহিদুল সানার বাড়ির ভিতর দিয়ে যেয়ে চিকিৎসা সেবা নিতে হয় রোগীদের।

সরকারের স্বাস্থ্য সেবা জনগনের দোরগোড়ায় পৌছে দিতে কয়লা কমিউনিটি ক্লিনিক এর জন্য সরকারি খাস জমির ওপর স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর ভবন নির্মাণ করে। কিন্তু যাতায়াাত করার জন্য যে জায়গা নির্ধারণ করা হয়েছে তার ওপর রাস্তা নির্মাণ করা হয়নি আজও। ফলে শিশুসহ গর্ভবতী মহিলা এবং বয়স্ক নারী-পুরুষ স্থানীয় লোকজনের বাড়ির ভিতর দিয়ে যেয়ে ক্লিনিকে চিকিৎসা সেবা নিতে হচ্ছে। যেটা একটি অস্বস্তিকর পরিবেশের সৃষ্টি করছে প্রতিনিয়ত।

 সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কয়লা কমিউনিটি ক্লিনিক মেইন রাস্তা থেকে কিছুটা ভিতরে বাঁশবাগানের ভিতরে অবস্থিত। ক্লিনিকে প্রবেশের রাস্তার জন্য নির্ধারিত জায়গা থাকলেও রাস্তা নির্মাণ করা হয়নি। সেখানে যেতে অন্যের বাড়ির ভিতরের পথই একমাত্র একমাত্র পথ। চিকিৎসা সেবা নিতে আসা কুমারনল গ্রামের আমিরুল ইসলামের স্ত্রী খাদিজা খাতুন জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গিকার গ্রাম হবে শহর। কিন্তু এই ক্লিনিক খুঁজে বের করতে আমার এক ঘন্টা সময় লেগেছে। এই ক্লিনিক কেউ চিনে না এবং ক্লিনিকে যাওয়ার কোন রাস্তা নেই। মনে হচ্ছে এই দ‚রাবস্থা দেখার কেউ নেই। তিনি সরকারের কাছে এই রাস্তাটি নির্মাণ করার দাবী করেছেন। এ ব্যাপারে কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্ত ডা. জিয়াউর রহমান জানান, এই রাস্তার বিষয়ে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মহোদয়ের সাথে আলোচনা করে সামনে দিয়ে একটি রাস্তা নির্মাণের চেষ্টা চলছে। খুব দ্রæত রাস্তা নির্মাণের ব্যবস্থা করা হবে বলে তিনি জানান।


error: Content is protected !!