কালীগঞ্জে বাগান থেকে শ্বাসরোধে হত্যায় এক বিধবার মৃতদেহ উদ্ধার!

0 ২৮৯

হাফিজুর রহমান /হাবিবুল্লাহ বাহারঃ- পরিত্যক্ত আম বাগান থেকে ধর্ষণ শেষে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা পঞ্চাশোর্ধ হাসিনা খাতুন (৫৫) নামে এক মহিলা বিধবার অর্ধ গলিত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার(১৭- সেপ্টেম্বর) বেলা ১২টার সময় স্থানীয় জনতার খবরে সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার ভাড়াশিমলা ইউনিয়নের ভাড়াশিমলা গ্রামের গোলাম মোস্তফার বাড়ির পিছনে পরিত্যক্ত আম বাগান থেকে নিহত বিধবার অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার করে। কালিগঞ্জ থানা পুলিশ নিহত বিধবা গৃহবধূ হাসিনা খাতুন উপজেলার খারহাট শেখপাড়া গ্রামের মৃত নবাবআলী গাজীর স্ত্রী এবং দাতপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রহমান পাড়ের কন্যা। নিহতের পুত্র আবু হাসান তার স্ত্রী আছিয়া খাতুন মহিলা ইউপি সদস্য আলেয়া খাতুন সাংবাদিকদের জানায়, ভাড়াশিমলা গ্রামের গোলাম মোস্তফার বাড়িতে কেউ বাস করে না তার বাড়ির পূর্ব দিকের পিছনে পরিত্যক্ত আমবাগানে শুক্রবার বেলা আনুমানিক ১২টার সময় শাড়ি পড়া অর্ধনগ্ন এবং অর্ধগলিত হাসিনার মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে জনৈক মহিলা খবর দেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ শনাক্ত করে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে থানা হতে বেলা সাড়ে ১২টার সময় উপ পরিদর্শক গোবিন্দ আকর্ষণ, মনির হোসেন, মনির তরফদার তুহিন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল হতে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে লাশ উদ্ধার করে। তবে লাশ দেখে পুলিশের ধারণা ২ দিন আগে কে বা কাহারা নিহত বিধবা গৃহবধূকে পরিকল্পিতভাবে বাগানে নিয়ে ধর্ষণ শেষে গলায় শাড়ি পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে ফেলে রেখে যায়। পাশের বাড়িতে কোন লোক বসবাস না করায় এবং বাগান এলাকায় হওয়ায় কেউ খোঁজ পায়নি খবর পেয়ে আনুমানিক দুইটার সময় কালীগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা সাতক্ষীরা জেলার পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন এর পরিদর্শক তদন্ত সঞ্জয় সরকার, সিআইডির পরিদর্শক তদন্ত আবুল কাশেমের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। নিহত বিধবার পুত্র আবু হাসান ইউপি সদস্য আলেয়া বেগম, ইসমাইল গাজী, রহমতউল্লাহ সহ একাধিক ব্যক্তি জানান, হাসিনা বেগমের স্বামী মারা যাওয়ার পার হতে ভ্রাম্যমান পতিতা হিসেবে বিভিন্ন জায়গায় অসামাজিক কার্যকলাপ করে আসছিল। সে কারণে বাড়িতে থাকত না প্রায় বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন লোকের বাড়িতে থাকতো। হাসিনা বেগমকে ভালো পথে আনার জন্য তার ভাই আলহাজ কোরবান আলী পার তার মা পুত্র আবু হাসান সহ স্থানীয় ইউপি সদস্য রা একাধিকবার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। তবে তার পুত্র আবু হাসান সাংবাদিকদের জানায়, খারহাট গ্রামের গৌতমের বাড়িতে থাকা তার আত্মীয় প্রদীপ ঘোষ নিহত বিধবা হাসিনাকে বিবাহের এবং বিদেশ পাঠানোর প্রলোভন দেখিয়ে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনায় একাধিকবার এলাকায় সালিশ বিচার হয়েছে। টাকা সাথে প্রদীপ ঘোষ তার মাকে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছিল। কে হত্যা করতে পারে এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা সাংবাদিকদের জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য এখনই সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়েছে। আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি তদন্তপূর্বক প্রকৃত হত্যাকারীদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় নিয়ে বিচারের মুখোমুখি করা হবে।।


error: Content is protected !!