দেবহাটায় প্রভাবশালীর হয়রানী থেকে রেহাই পেতে সংবাদ সম্মেলন

কর্তৃক Ahadur Rahman Jony
০ কমেন্ট 79 ভিউস

দেবহাটা ব্যুরো: দেবহাটায় জমিজমা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে মোশারফ হোসেন নামের এক প্রভাবশালী ব্যক্তির হয়রানী থেকে রেহাই পেতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নাংলা গ্রামের মোতলেব আলী গাজীর ছেলে হাফিজুল ইসলাম, হাবিবুল্লাহ ইসলাম, হারুন ও একই গ্রামের মৃত ছামছদ্দীন গাজীর ছেলে মোকছেদ আলী গাজী। শনিবার সকাল ১০টায় দেবহাটা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন হাফিজুল ইসলাম। এসময় লিখিত বক্তব্যে হাফিজুল ইসলাম বলেন, নাংলা গ্রামের মৃত ইয়াছিন আলী মোল্লার ছেলে প্রভাবশালী মোশারফ হোসেনের কাছ থেকে ১৯/০৩/১৩ তারিখে হাফিজুল, হাবিবুল্লাহ ও হারুন সাড়ে ১৬ শতক জমি, ০৬/০৩/১৪ তারিখে হাফিজুল সাড়ে ১৬ শতক জমি এবং ২৪/০৬/১৪ তারিখে মোকছেদ আলী সাড়ে ১৬ শতক জমি মিলিয়ে মোট সাড়ে ৪৯ শতক জমি ক্রয় করেন। ক্রয় পরবর্তী নাংলা মৌজার হাল ১৪০৯, ১৪১০, ১৪১১, ১৪১২, ১৪১৩, ১৪১৪, ১৪১৫, ১৪১৭ ও ১৪১৭ দাগের উক্ত সাড়ে ৪৯ শতক জমি তারা শান্তিপুর্নভাবে ভোগদখল করে আসছেন। একই সাথে তাদের ক্রয়কৃত জমির সামনে অর্থাৎ হাল ১৪০৮ দাগে সরকারী রাস্তার সাথে সংযুক্ত থাকা কয়েক শতক খাস জমিও তারা ভোগদখল ও চাষাবাদ করেন। ইতোপুর্বে ১৯৯৯-২০০০ সালে সরকারী রাস্তার পাশের ওই খাস জমি থেকে ৩০ শতক জমি প্রভাবশালী মোশারফ হোসেনের বোন সায়রা খাতুনকে হস্তান্তর বা বিক্রয় না করার শর্তে বন্দোবস্ত দেয় সরকার। কিন্তু সায়রা খাতুনের মৃত্যুর পর বন্দোবস্ত বাতিল হলে ওই ৩০ শতক সহ রাস্তার আরো ৯ শতক মিলিয়ে মোট ৩৯ শতক জমি আবারো সরকারী মালিকানায় ১নং খাস খতিয়ানে অর্ন্তভুক্ত করা হয়। বর্তমানে ক্রয়কৃত রেকর্ডীয় সাড়ে ৪৯ শতক জমির সাথে সংযুক্ত খাস খতিয়ান ভুক্ত জমির কিছু অংশ হাফিজুল, হাবিবুল্লাহ, হারুন ও মোকছেদ আলী ভোগদখল করছেন। কিন্তু ইতোমধ্যেই প্রভাবশালী মোশারফ হোসেন সরকারি খাস খতিয়ান ভুক্ত ৩০ শতক জমির দখল নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। যদিও তৎকালীন সময়ে ওই খাস জমি মোশারফের বোন মরহুমা সায়রা খাতুনের নামে বন্দোবস্ত এবং পরবর্তীতে সেই বন্দোবস্ত বাতিল হয়ে জমিটি আবারো খাস খতিয়ান ভুক্ত হয়ে সরকারী মালিকানায় ফিরে গেলেও, মোশারফ হোসেন নিজের নামে মিথ্যা বন্দোবস্তের কথা বলে তাদের বিরুদ্ধে দেবহাটা থানায় একটি মিথ্যা অভিযোগ দায়ের সহ বিভিন্ন মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে তাদেরকে হয়রানীর হুমকি দিচ্ছে। তাই সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রভাবশালী মোশারফ হোসেনের হয়রানী থেকে রেহাই পেতে দেবহাটা থানা পুলিশ সহ সংশ্লিষ্ঠ কর্মকর্তাদের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন তারা।



রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!