পাইকগাছায় সরকারী রাস্তা দখল করে দোকান সম্প্রসারণের অভিযোগ

কর্তৃক Ahadur Rahman Jony
০ কমেন্ট 11 ভিউস

প্রমথ সানা, পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি: পাইকগাছার কপিলমুনিতে চলাচলের জনগুরত্বপূর্ণ সরকারী রাস্তা দখল করে দোকানের বারান্দা সম্প্রসারণের অভিযোগে কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন স্থানীয় ইউএলএও ভূমি কর্মকর্তা জাকির হোসেন। সরকারী ছুটির ফাঁকে ফের দখল প্রক্রিয়া শুরু হতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করেছেন, বাজার ব্যবসায়ীসহ স্থানীয়রা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ইউনিয়ন ভূমি কর্তার হস্তক্ষেপে নির্মাণ কাজ বন্ধ থাকলেও রাস্তার উপর ইটের গাঁথুনি এখনো অপসারণ না হওয়ায় আশংকা আরো দানা বেঁধেছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে তারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্থক্ষেপ কামনা করেছেন।
অভিযোগে জানাযায়, উপজেলার অন্যতম প্রধান ও ব্যস্ততম বাণিজ্যেক কেন্দ্র কপিলমুনির প্রাণকেন্দ্রের ব্যস্ততম কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ রোডের চলাচলের সরকারী রাস্তাটির এক পাশের প্রায় দু’ফুট জায়গা প্রাকাশ্যে দখল করে সেখানে পার্কিং টাইলস বসানোর কাজ শুরু করে দেয় স্থানীয় খান গ্রুপ। রাস্তাটি দিয়ে মূল বাজারের মধ্যে প্রবেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এরপরও প্রতিনিয়ত ছোট-খাট জানযটে জটলা লেগেই থাকে সেখানে। তাৎক্ষণিক বিষয়টি স্থানীয়দের দৃষ্টিগোচর হয়। জনসাধারণের চলাচলের রাস্তা সংকুচিত হওয়ার খবর পেয়ে কপিলমুনি ভূমি অফিসের ইউএলএও জাকির হোসেন সরেজমিনে এসে নির্মাণ কাজ বন্ধ করতে নির্দেশ দেন। তবে স্থানীয়দের আশঙ্কা, নির্মাণ কাজ আশু বন্ধ হলেও রাস্তার উপর ইটের গাথুনি এখন পর্যন্ত অপসারণ হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে, দু’দিনের সাপ্তাহিক ছুটিতে ভূমি কর্তাদের অনুপস্থিতির সুযোগে সেখানে ফের শুরু হতে পারে কার্যক্রম। সামগ্রিক ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এলাকাবাসী। এ ব্যাপারে কপিলমুনি ভূমি অফিসের ইউএলএও জাকির হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, বাজারের ভিতর অংশে সরকারী জায়গা দখল করে কেউ কোন প্রকার ইমারত নির্মাণ করতে পারবে না। আর জনসাধারণের চলাচলের রাস্তা দখল করে দোকানের বারান্দা সম্প্রসারণ কিংবা শ্রীবৃদ্ধির কোন প্রকার সুযোগ নেই। সর্বশেষ ঘটনায় বাজারের ব্যবসায়ী, পথচারী, সচেতন এলাকাবাসী বাজার অভ্যান্তরের রাস্তার দখল ঠেকাতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার জরুরী হস্থক্ষেপ কামনা করেছেন।

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!