বুধহাটায় ব্লুগোল্ডের অপকর্মে বীজতলা নিয়ে কৃষকের মাথায় হাত

কর্তৃক Ahadur Rahman Jony
০ কমেন্ট 13 ভিউস

সচ্চিদানন্দদে সদয়,আশাশুনি: আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের একটি বিরাট অংশে ২/৩ ফসলী ধান চাষ হয়ে থাকে। ব্লুগোল্ড নামে একটি প্রতিষ্ঠান অপরিকল্পিত ভাবে কালভার্ট নির্মান করে এলাকায় লবণ পানি ঢুকিয়ে বীজতলা ও ধান চাষকে হুমকী গ্রস্ত করে তুলেছে। এনিয়ে প্রতিবাদ ও প্রতিকারের চেষ্টা করেও এলাকাবাসী বিফল হয়েছে। কেউ তাদের কথা শুনেনি, উদ্ধতন কর্তৃপক্ষও কোন ব্যবস্থা নেয়নি। সংগত কারণে এলাকাবাসীর মধ্যে প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে, ব্লুগোল্ড এর নিয়ন্ত্রন কর্তৃপক্ষ কারা? বুধহাটা ইউনিয়নের বুধহাটা, শে^তপুর, নওয়াপাড়া, মহেশ^রকাটি, পদ্মবেউলা, পাইথালী, চিলেডাঙ্গা, কুঁন্দুড়িয়া, ঝাটিরকাটাসহ বিভিন্ন মৌজার হাজার হাজার বিঘা জমিতে বোরো, আমন, আউশ ধান চাষসহ বিভিন্ন ফসল উৎপাদন হয়ে থাকে। এ এলাকার পানি নিস্কাশনে জটিলতা থাকলেও লবণ পানির প্রবেশের কোন সুযোগ ছিলনা। গত বছর ব্লুগোল্ড আশাশুনি-সাতক্ষীরা সড়কের চিলেডাঙ্গা মোড় হতে পাইথালী গামী কার্পেটিং সড়ক কেটে কালভার্ট নির্মান কাজ শুরু করে। চিলেডাঙ্গা রাস্তার এক পাশে মিষ্টি পানি ও অপর পাশে লবণ পানির চিংড়ী চাষ হয়ে থাকে। বুধহাটা ইউপি চেয়ারম্যান ইঞ্জিঃ আ ব ম মোছাদ্দেক ওখানে কালভার্ট নির্মান করলে লবণ পানিতে এলাকার হাজার হাজার বিঘা জমির ফসল নষ্ট হয়ে যাবে বুঝতে পেরে নির্মান কাজে বাধা প্রদান করেন। কিন্তু তারা কাজে অনড় থাকে। তখন সবশেষ সিদ্ধান্ত হয়ে কালভার্টে পাটের ব্যবস্থা রাখা হবে। যাতে প্রয়োজনের সময় লবণ পানি ঢোকা বন্ধ রাখা যায়। সাংবাদিকরা কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চাইলে তারাও জানান, কালভার্টে পাটের ব্যবস্থা থাকবে। কিন্তু তাতে পাটের ব্যবস্থা করা হয়নি। ফলে কালভার্টের মুখের যেনতেন মাটির বাধ ভেঙ্গে গত দু’দিন যাবৎ লবণ পানি ব্যাপক ¯্রােতসহকারে ভিতরে ঢুকে এলাকাকে লবণ পানিতে একাকার করে দিয়েছে। লবণ পানির প্রভাবে বিলের বীজতলার পাতা লালচে হয়ে মরে যাচ্ছে। দ্রব্যমূল্যের এই বাজারে বীজতলা নষ্ট হয়ে যাওয়ায় কৃষকদের মাথায় হাত উঠে গেছে। এব্যাপারে এলাকার দায়িত্বে নিয়োজিত উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ইকবাল হোসেন জানান, লবণ পানি বিলে প্রবেশ করে বীজতলা বিনষ্ট করে দিচ্ছে। বৃষ্টির অভাবে কৃষকরা বিলম্বে বীজতলা করেছেন। এগুলো নষ্ট হয়ে গেলে ধান চাষ ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে পড়বে। এব্যাপারে মাননীয় সংসদ সদস্য, জেলা প্রশাসক, উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে।

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!